প্রকাশঃ Thu, Jan 14, 2021 8:41 PM
আপডেটঃ Fri, Feb 26, 2021 1:09 PM


বুদ্ধিহীন মায়ের অকৃত্রিম ভালবাসা

বুদ্ধিহীন মায়ের অকৃত্রিম ভালবাসা

এই ব্যাঙটার ডিজাইন দেখে পুরো থমকে গেছি আমি।এটা নিয়ে দারুণ কিছু ভাবার আছে আমাদের।একটু ভালো করে তাকিয়ে দেখুন, ব্যাঙটা তার নিজের সন্তানকে কিভাবে কাঁধে নিয়ে বসে আছে! প্রশ্ন করুন!কে দিলো সন্তানের প্রতি বুদ্ধিহীন মায়ের এই অকৃত্রিম ভালোবাসা? 




আরও আশ্চর্যের বিষয় হলো এই এক দলা মাংসপিণ্ডের মতো রঙহীন, শ্রীহীন, হাত-পা বিহীন বাচ্চাটাও বড়ো হলে একদিন তার মায়ের মতো সুন্দরী হবে! মায়ের মতো হবে গাঢ় বৃত্ত কালো মায়াবী চোখ! দু'পাশে উঁচু লোমহীন ভ্রু! পিঠ অব্দি হলদে এপ্রন! তার উপর আবার ৬-৭ টি কালো রঙের ছটা! 


দুই হাতের কনুই বরাবর ঠিক একই জায়গায় একই মাপের দুটো কালো রঙের গোলাকার ছোপ! 


পুরো শরীর জুড়ে কি অসাধারণ এক জ্যামিতিক নকশা! আবার লক্ষ করুন ছবিটি। দেখতে পারবেন -নিখুঁত জ্যামিতিক মাপে দু'হাতে, দু'পায়ে ৩ টি করে আঙুল! আঙুলের মাথাগুলো আবার ভাঁজও করা যায়! এরপর কোমড় থেকে নিচের দিকে গাঢ় কালো রঙের উপর নীল রঙের অদ্ভুত পেইন্টিং

এটা তো শুধু শরীর উপরের অংশের চামড়াটারই বর্ননা দিলাম। শরীরের ভেতরের অংশগুলো তুলে ধরলে বিশাল লেখা হয়ে যাবে। কিন্তু পুরো বিষয়টা একটাবার উপলব্ধি করে ভাবুন—  

কি করে বাচ্চাটাও একদিন হুবহু তার মায়ের মতো দেখতে হবে? এখন প্রশ্ন করুন —


কে দিলো ওই বাচ্চা ব্যাঙটার ভেতর এতো অদ্ভুত ডিএনএ প্যাটার্ন করে? যার বদৌলতে শ্রীহীন বাচ্চাটার গায়ে একদিন রঙের ছটা এসে পরবে! লেজ খসে পা গজাবে! ক্ষুদে চোখ গুলো বড় কালো গাঢ় হয়ে যাবে! শরীরের অর্ধেক জুড়ে হলুদ! অর্ধেক জুড়ে কালো রঙ হবে! আঙুল থেকে শুরু করে শরীরের প্রতিটি অংশ জ্যামিতিক ভাবে নিপুণ ও সুসামঞ্জস্যপূর্ণ আকার ধারণ করবে।




কে দিলো এই সিস্টেমটা করে? কে দিলো এই নিখুঁত সৌন্দর্য্য এঁকে? কে দিলো মায়ের বুকে সন্তানের প্রতি ভালোবাসা? ভাবুন... ভাবুন... ভাবুন... ।

কেনোনা মহান আল্লাহ বলেন, “নিশ্চয় আকাশমণ্ডলী ও পৃথিবীতে মুমিনদের জন্য নিদর্শন রয়েছে।” (সুরা জাছিয়া :৩) 

আর আল্লাহ পাকের সৃষ্টি সম্পর্কে চিন্তা করে তার মহত্ত্ব অনুধাবন করাটাও ইবাদত। 




ভালো কথা। ব্যাঙটার নামটাই তো বলা হলো না। ব্যাঙটার নাম—[ poison dart frog ]




আকাশ টিভি 



www.a2sys.co

আরো পড়ুন