প্রকাশঃ Thu, Apr 15, 2021 11:41 PM
আপডেটঃ Wed, May 5, 2021 3:44 AM


যুবলীগ নেতার রেখে যাওয়া বোমা বিষ্ফোরনে ছেলে নিহত,মা ও মেয়ে জখম

যুবলীগ নেতার রেখে যাওয়া বোমা বিষ্ফোরনে ছেলে নিহত,মা ও মেয়ে জখম

মোঃ জাকির হোসেন,কেশবপুরঃ যশোরের কেশবপুরে বাউশলা গ্রামে এক যুবলীগ নেতা ফারুক হোসেনের মৎস্য ঘেরের টোং ঘরে  রেখে  যাওয়া বোমা বিষ্ফোরনে ঘটনাস্থলে আব্দুর রহমান নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। ওই বোমা বিষ্ফোরনে মা ও মেয়ে জখম হয়ে কেশবপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  তাদের অবস্থার অবনতি হলে খুলনা মেডিকেলে হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।





থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জসিম উদ্দীন নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে টোং  ঘরের পাশ্ববর্তি এক  যুবলীগ নেতার ঘেরের টোঙ ঘর থেকে মাদক সেবনের সরাঞ্জাম উদ্ধার করেছে। এঘটনায় পুলিশ ফারুক হোসেন(৫৫) নামে এক যুবলীগ নেতাকে আটক করেছে।


জানা গেছে, উপজেলার  বাউশলা গ্রামের  মিজানুর  রহমানের চলাচলে অক্ষম অবর্তমানে স্ত্রী নিলুফা বেগম প্রতি দিনের ন্যায় ১৫এপ্রিল সকালে বাড়ীর পাশ্ববর্তি মাঠে যায় তাদের  স্যালো  মেশিন পানি উঠছে কিনা তা দেখতে। এসময় টোং ঘরে স্যালো মেশিনের পাশে পরিতাক্তবস্থায় একটি কৌটা পড়ে থাকতে দেখে সে কৌটাটি হাতে করে বাড়ীতে আনে।


দুপুরের দিকে নিলুফা তার ছেলে আব্দুর রহমান ও মেয়ে মারুফা  মিলে কৌটাটি খোলার  চেষ্টাকালে  সেটি বিষ্ফোরিত হয়। এতে  ঘটনাস্থলে ছেলে আব্দুর রহমান (১০) নিহত হয়। মারাত্বকভাবে আহত হয় নিলুফা (২৭) ও  শিশু কন্যা মারুফা(৪)। প্রতিবেশীরা আহত মা-মেয়েকে মুমুর্ষবস্থায় উদ্ধার করে কেশবপুর হাসপাতালে ভর্তি  করে।



সংবাদ পেয়ে পুলিশ  ঘটনাস্থলের পাশ্ববর্তি এক  যুবলীগ নেতার ঘেরের টোঙ থেকে  মাদক সেবনের সরঞ্জাম উদ্ধার করেছে। পরে অভিযান চালিয়ে বোমার ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ৪নং বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেনের ভাই ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক ফারুক হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ।



এব্যাপারে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ জসীম উদ্দীন সাংবাদিকদের বলেন, তিনি নিজে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে  ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। বোমার ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে ফারুক হোসেন নামে এক যুবলীগ নেতাকে আটক করা হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল।



www.a2sys.co

আরো পড়ুন