প্রকাশঃ Sun, Sep 24, 2023 3:56 PM
আপডেটঃ Thu, Jun 6, 2024 9:50 AM


পরিকল্পনা ছাড়া প্রবাসে গিয়েও বিপাকে পড়েন অনেক তরুণ

পরিকল্পনা ছাড়া প্রবাসে গিয়েও বিপাকে পড়েন অনেক তরুণ

আব্দুল্লাহ আল মারুফ।। 

অনেকের প্রশ্ন আমি সংসদ সদস্য হতে চাই কেন? আমার সোজা উত্তর সংসদ সদস্য হই বা না হই বরুড়ার মানুষের জন্য আমার দুয়ার আজীবন খোলা। আমি বহু আগে থেকে এস কিউ ফাউন্ডেশন করে বরুড়ার মানুষের পাশে আছি। আমার এলাকার ছেলে মেয়েরা শিক্ষিত হচ্ছে। কিন্তু তাদের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নেই। ছেলে মেয়েরা পড়াশোনা শেষ করে প্রবাসে গিয়ে লেবারের চাকরি করে। সুইপারের চাকরি করে। অথচ এই মেধাবী ছেলে মেয়ে গুলোর পরিকল্পনা থাকলে দেশেই খুব ভালো কর্মসংস্থান হতে পারে। আর বিদেশেও তারা ভালো মানের কর্মসংস্থান পেতে পারে। আমার চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।


সরকারের সঙ্গে থেকে যদি আমরা কাজ না করি তাহলে আমরা যতই পরিকল্পনা করি তা বাস্তবে রূপ দিতে সময় লাগবে। কিন্তু সরকারের সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ করলে তা গতিশীল ও বেশি কাজের হয়। তাই আমার উদ্দ্যেশ্য শুধু ব্যক্তিগত নয় সরকারি সুবিধাও যেন আমার তরুণ ছেলে মেয়েরা পায়। এবং বরুড়া যেন দেশের একটা মডেল উপজেলা হয়। 


শনিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) কুমিল্লার বরুড়ায় একটি অনুষ্ঠানে এসব কথা বলে কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও এস কিউ গ্রপের চেয়ারম্যান এ জেড এম শফিউদ্দিন (শামীম)। উপজেলার ঝলম এলাকার একটি রেস্টুরেন্টে উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিক ও গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে মতবিনিময় সভা ও দৈনিক বরুড়া কন্ঠের সম্পাদক ও প্রকাশক মোঃ ইউছুফ আলীর মরণোত্তর সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।


এসময় তিনি আরও বলেন, আপনি যদি মানুষের পাশে দাঁড়াতে চান, তাহলে যেকোন জায়গা থেকে যেকোন অবস্থাতেই সেটা সম্ভব। আমার পূর্ব পুরুষরা মানুষের জন্য কেমন করে গেছেন তা এলাকার মানুষ জানে। করোনাকালে আমরা সংকটের মধ্যে ছিলাম। যখন সারাদেশে অক্সিজেন সংকট ছিল আমার এক কর্মকর্তা এসে বললেন স্যার মানুষের পাশে দাঁড়ানোর এখনই সময়। চারদিকে অক্সিজেনের জন্য হাহাকার। আমি বললাম তোমার দায়ত্বে ব্যবস্থা নাও। তিনি কিছুক্ষণ পর জানালেন অক্সিজেন পাওয়া যাচ্ছে না। আর যা আছে তাতে আমার উপজেলায় চলবে না। আমি সোজা উত্তর দিলাম যেভাবে যেখান থেকে হোক ব্যবস্থা করো। তারপরের ঘটনা আপনারা জানেন। 


সাংবাদিক ইউসুফ আলী সম্পর্কে বলতে গিয়ে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ইউসুফ আলী সৎ ও নিষ্ঠাবান ছিলেন। অসুস্থ অবস্থায় যতবার গিয়েছেন চেষ্টা করেছি পাশে থাকার। 


অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কামরুন নাহার শিখা, আগানগর ইউপি চেয়ারম্যান মাজহারুল ইসলাম মিঠু, এস কিউ ফাউন্ডেশনের সদস্য সচিব মো. তোফায়েল আহমেদ, বরুড়া পৌরসভার সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর মিনুয়ারা বেগম।


সভা শেষে বরুড়া থেকে প্রকাশিত দৈনিক বরুড়া কন্ঠ পত্রিকার প্রয়াত সম্পাদক ও প্রকাশক মো. ইউছুফ আলীর স্ত্রীর হাতে মরণোত্তর সম্মাননা স্মারক ও নগদ অর্থ তুলে দেন অতিথিরা।



www.a2sys.co

আরো পড়ুন