শিরোনাম

প্রকাশঃ Fri, May 24, 2024 7:59 PM
আপডেটঃ Wed, Jul 24, 2024 8:08 PM


মুরাদনগরে ২১ চেয়ারম্যানের একক প্রার্থী ড. কিশোর আলম

মুরাদনগরে ২১ চেয়ারম্যানের একক প্রার্থী ড. কিশোর আলম

এন এ মুরাদ, মুরাদনগর।

কুমিল্লার মুরাদনগরে ২১ ইউপি চেয়ারম্যান ও ওয়ার্ড সদস্যদের  একক প্রার্থী  উপজেলা চেয়ারম্যান ড. আহসানুল আলম সরকার কিশোর। তিনি (আনারস) প্রতীক নিয়ে মুরাদনগর উপজেলা পরিষদ থেকে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদন্ধীতা করছেন। তার অপর প্রতিদ্বন্দীরা হলেন মুরাদনগর উপজেলা আওয়মীলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম সারোয়ার চিনু (ঘোড়া) , রাশেদুল আলম হায়দার (দোয়াত কলম) ও বশির আহম্মেদ (কাপ পিরিচ)।


নির্বাচনে মার্কা পেলেও  মাঠে তাদের গণসংযোগ ও তাপ নেই।  উত্তাপ ছড়াচ্ছেন ডক্টর কিশোর আলম। 

উপজেলা নির্বাচনকে উৎসবমুখর ও  প্রভাব মুক্ত রাখতে নির্বাচনে ঢাকায় অবস্থান করছেন  (কুমিল্লা-৩) মুরাদনগর উপজেলার সংসদ সদস্য আলহাজ¦ জাহাঙ্গীর আলম সরকার। তাঁর একমাত্র সন্তান ড. আহসানুল আলম সরকার কিশোর মুরাদনগর থেকে উপজেলা চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী।

এমপি জাহাঙ্গীর আলম সরকার বলেন, “ অবাধ, সুষ্ঠ , নিরপেক্ষ ও প্রতিদ্ব›দ্বীতা মূলক একটি নির্বাচন হবে মুরাদনগর। এখানে আমি কাউকে সমর্থন কিংবা প্যানেল দিচ্ছি না। জনগণের ভোটে যে নির্বাচিত হয়ে আসবে তাকেই বরণ করে নিবো। 

বর্তমান এই সাংসদ  দূরে থাকলে উপজেলার সকল গ্রæপিংয়ের অবসান করে আওয়ামী লীগকে এক ছাতার নিচে আসছেন। সাবেক এমপি ইউসুফ আব্দুল্লাহ হারুনের অনুসারীরা জাহাঙ্গীর আলম সরকারের ধানমন্ডি বাসভবনে গিয়ে দলে দলে যোগদান করছেন। এই মূহুর্তে মুরাদনগর উপজেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দের মাঝে কোন দ্বিধা বিভক্তি নেই।

 এবিষয়ে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ম. রুহুল আমিন জানান, “ মুরাদনগর উপজেলা আওয়ামীলীগ এখন এক ও অভিন্ন। এখন দলীয় কোন গ্রæপিং নেই। আসন্ন উপজেলা নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন,  বর্তমান উপজেলা প্রার্থীদের মধ্যে কিশোরই যোগ্য। সে দলীয় ও মানবসেবায় দিন-রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।  করোনা মহামারীতে নিজের জীবন বাজী রেখে লাশ দাফন কাফন করেছেন। এছাড়াও কৃষকের ধানকাটা, তীব্রতাপদাহে  খেটে খাওয়া মানুষের তৃষ্ণা নিবারনের জন্য পানি বিতরণ করেছেন। উপজেলা আওয়ামীলীগ কিশোরের জন্যই গণসংযোগ করছেন ” । 

এদিকে মুরাদনগর উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী আনারসের শক্ত কোন প্রতিপক্ষ না থাকলেও ভাইস চেয়ারম্যানদের মধ্যে হবে তুমূল লড়াই। পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মোট-৫ জন। এরা হলেন, আতিকুর রহমান হেলাল  (তালা) মার্কা, আব্দুল্লাহ নজরুল (টিয়া পাখি) , শাহীন (টিউওওয়েল), সৈয়দ তানভীর আহমেদ ফয়সাল (চশমা) ও হাবিবুর রহমান উড়ােজাহাজ। 

এদের মধ্যে সৈয়দ তানভীর আহমেদ ফয়সাল ,  হাবিবুর রহমান ও শাহীন এই ৩ জন রয়েছে ব্যাপক  আলোচনায়।  ত্রিমুখী লড়াই হতে পারে বলে ধারনা করছেন বিশিষ্টজনরা।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ৬ জন। আছমা বেগম (পদ্মফুল), আফজালুন নেছা বাসিত (ফুটবল), কুলসুম আক্তার (কলস), নাজমা আক্তার (প্রজাপতি) নুরজাহান মজুমদার (হাঁস), সাবেক তিন বারের মহিলা ভাই চেয়ারম্যান সানোয়ারা বেগম লুনা  (সেলাই মেশিন) তাদের মধ্যেও প্রচার প্রচারনা জমে উঠেছে। 

 সাবেক এমপি’র একাধিক নেতার সাথে কথা বলে জানা যায়, তাদের বিশ^াস ছিলো  ইউসুফ আব্দুল্লাহ হারুন ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ  নির্বাচনে প্রার্থী দিয়ে নিজের অবস্থান ধরে রাখবেন। কিন্তু চিত্র উল্টো। কর্মীরা ইউসুফ হারুনের প্রার্থী না পেয়ে  উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী এমপি পুত্র ড. কিশোর আলমের  আনারস প্রতীক নিয়ে গণসংযোগ করছেন।



www.a2sys.co

আরো পড়ুন